চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

‘বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িতদের খুঁজতে কমিশন গঠনের চিন্তা’

প্রকাশ: ২০১৭-০৮-১৭ ২২:৫৮:০৮ || আপডেট: ২০১৭-০৮-১৮ ১০:২২:২৪

আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পেছনে জড়িতদের খুঁজে বের করতে সরকার একটি কমিশন গঠনের চিন্তা করছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ আগস্ট) রাজধানীর নিবন্ধন পরিদফতর প্রাঙ্গণে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাৎ বার্ষিকীর আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে কারা জড়িত ছিল, তাদের খুঁজে বের করতে একটা কমিশন করার চিন্তা করছে সরকার। যাতে আমাদের নতুন প্রজন্ম বিষয়টি জানতে পারে।

বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় জিয়াউর রহমান জড়িত ছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জিয়াউর রহমান জড়িত ছিলেন। কিন্তু যখন এই তদন্ত হয় তখন তিনি ১৫ বছরের মৃত্যু। মৃত্যুকে মামলায় অভিযুক্ত করা যায় না।

তিনি বলেন, এই বিচার অনুষ্ঠিত হওয়ার ২১ বছর আগে এই হত্যাকণ্ডটি সংঘঠিত হয়েছিল। ২১ বছর পরে অনেক কিছু তদন্তে আসেনি। যদি ২১ বছর আগে মামলা হতো। বিচার অনুষ্ঠিত হতো তাহলে এই মামলায় অনেক কিছু বেরিয়ে আসতো।

কোনো একক নেতৃত্বে স্বাধীনতা হয়নি সম্প্রতি রায়ের পর্যবেক্ষণে উল্লেখ করা এমন মন্তব্যের প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের এমন একজন নেতাকে দেখান যে যিনি ১৩ বছরের অধীক সময় বাঙালি জাতির জন্য কারাবরণ করেছেন। বঙ্গবন্ধু হওয়ার আগে তিনি আমাদেরকে অনেক কিছু দিয়ে গেছেন। বাঙালি বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারবে বঙ্গবন্ধু সেই ভাষা আমাদেরকে দিয়ে গেছেন। গণতন্ত্র দিয়ে গেছেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ একটা দল ছিল কিন্তু ৭০ এর নির্বাচনে বাংলাদেশ মানুষ ভোট দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধুকে। বাংলাদেশ যতদিন থাকবে ততদিন বঙ্গবন্ধু থাকবে।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়, সেই হত্যার প্যাটার্নটা দেখেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়, তার স্ত্রী, সন্তান, পুত্রবধূকে হত্যা করা হয়। কিন্তু কেন। এই হত্যাকাণ্ডের সবচেয়ে বড় একটা কারণ ছিল তারা বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানানোর চেষ্টা করেছিল। কিন্তু তখন তারা পারেনি। এরপর খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুকে মুছে ফেলার জন্য চেষ্টা করেছে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্বে রোল মডেল হিসেবে এগিয়ে যাচ্ছে। তাই এই শোককে শক্তিকে পরিণত করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

আমাদের মধ্যে শত্রু রয়েছে উল্লেখ করে আইনমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুকে কিন্তু লাহরে মারা হয়নি, তাকে ঢাকায় হত্যা করা হয়েছে। এর মানে হলো আমাদের মধ্যেই শত্রু আছে।

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচার দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার সমালোচনা করে তিনি বলেন, যিনি হাইকোর্ট, সুপ্রিম কোর্ট দিয়ে গেছেন কিন্তু অনেক বিচারপতি তার হত্যার বিচার করতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন। এটা আমাদের জন্য লজ্জার। এই বিচারের মধ্যে দিয়ে সব শেষ হয়ে যায়নি। ২১ বছরের বিচারের কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

সচিব আবু সালেহ শেখ জহিরুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শহীদুল হক, অতিরিক্ত সচিব নাসরিন বেগম, ইসরাইল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান ও নিবন্ধন পরিদফতরের মহাপরিচালক খান আবদুল মান্নান প্রমুখ।

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ