চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

মিরসরাইয়ে ইংরেজিতে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ দিয়ে চমকে দিল ৪র্থ শ্রেণীর আরিয়ান

প্রকাশ: ২০১৭-১২-০৩ ১৭:৫৮:০৮ || আপডেট: ২০১৭-১২-০৩ ১৭:৫৮:০৮

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই প্রতিনিধি 

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজবুর রহমানের ভাষণ সম্প্রতি ইউনেস্কো স্বীকৃতি দিয়েছে। যা বাংলাদেশের জন্য অন্যতম অর্জন। ঐতিহাসিক ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যেভাবে দাঁড়িয়ে ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন ঠিক সেইভাবেই ভাষণ দিলো চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের ইশতিয়াক ইসলাম আরিয়ান। তাও আবার পুরো ভাষণ ইংরেজীতে উপস্থাপন করে ইতিহাসের পাতায় নতুন চমক দিয়েছেন ওই বালক।

উপজেলার বারইয়ারহাট সাইনিং স্কুল এন্ড কলেজের অ্যানুয়েল কালচারাল ফেষ্টিভ্যাল অনুষ্ঠানের বিশেষ আর্কষন হিসেবে মঞ্চে উঠে ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র বিষ্ময় বালক আরিয়ান। তার পরনে সাদা ধবধবে পাঞ্জাবি, পায়জামা। তার ওপর একটি কালো মুজিব কোট। মঞ্চে উঠে আরিয়ান যেন আগুন ঝরাল। একটুও না থেমে প্রথমে অনর্গল উচ্চৈঃস্বরে সে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষন ইংরেজিতে বক্তৃতা দিয়ে গেল। রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যেভাবে দাঁড়িয়ে ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়ে গোটা জাতিকে একটি পতাকাতলে জড়ো করার মধ্য দিয়ে পরবর্তীতে দেশের স্বাধীনতা অর্জন করেছিলেন। ঠিক সেভাবে অনুষ্ঠান মঞ্চে দাঁড়িয়ে বিষ্ময় বালক আরিয়ান বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ ইংরেজি ভাষায় পাঠ করলো। এ সময় তার একটি হাত পেছনে, একটি জনগণের উদ্দেশে সামনে। সেই হাত নেড়ে নেড়ে অবিকল বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ ইংরেজি অনুবাদে শোনা গেলো আরিয়ানের কণ্ঠে। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পিনপতন নীরবতা। ছোট্ট কোমলমতি এ শিশুটির প্রতিভা দেখে দর্শনার্থী সারিতে বসা সবাই মুগ্ধ। বিস্ময় বালক আরিয়ানের ভাষণ শেষে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ‘হাজার কবিতায় বঙ্গবন্ধু, টুঙ্গিপাড়ায় জন্ম তোমার, ‌কন্যার নাম শেখ হাসিনা’ গ্রন্থের রচয়িতা মহাকবি কাইয়ুম নিজামী তাকে অভ্যর্থনা জানান। এসময় আরিয়ানের হাতে কন্যার নাম শেখ হাসিনা’ গ্রন্থটি তুলে দেন।

সাইনিং স্কুল এন্ড কলেজের চেয়ারম্যান সৈয়দ আলিম উদ্দিন জানান, বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য (ওয়ার্ল্ডস ডক্যুমেন্টরি হেরিটেজ) হিসেবে ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পেয়েছে ৭ মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণ। আর্ন্তজাতিক ভাষায় বঙ্গবন্ধুর ভাষন আরিয়ানের মাধ্যমে উপস্থাপন ইতিহাসের নতুন রেকর্ড। বিস্ময় বালক আরিয়ানের পুরো ভাষণটি প্রমোট করে বিশ্বের দরবারে বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে ছড়িয়ে দিতে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের প্রতি আহবান জানান তিনি। আরিয়ানের ইংরেজি ভাষণের নেপথ্যের কারিগর স্কুলের প্রিন্সিপাল মোঃ ইমাম হোসেন বলেন, আরিয়ানের প্রতিভা অতুলনীয়। আমার আত্মবিশ্বাস ছিলো তাকে দিয়ে হবে। স্বল্প সময়ের মধ্যে সে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক বক্তব্য ইংরেজিতে রপ্ত করতে পেয়েছে। আরিয়ানের বক্তৃত্বাই বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের সর্বপ্রথম ইংরেজি ভাষনের বক্তৃতা।

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ