চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

বিএনপি’র দাবি, চট্টগ্রামে গুলিতে নিহত ব্যবসায়ী ‘যুবদল নেতা’

প্রকাশ: ২০১৭-১২-০৪ ০০:০১:৩৬ || আপডেট: ২০১৭-১২-০৪ ১৫:৫৪:৫১

চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের শোভাযাত্রা চলাকালে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হারুন চৌধুরীকে যুবদল নেতা বলে দাবি করেছে বিএনপি।

রবিবার (৩ ডিসেম্বর) রাতে নগর বিএনপির এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। নিহত হারুন প্রয়াত বিএনপি নেতা দস্তগীর চৌধুরীর ভাই আলমগীর চৌধুরীর ছেলে এবং সদরঘাট থানা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক।

বিবৃতিতে এই হত্যাকাণ্ডের জন্য আওয়ামী লীগকে দায়ী করেছেন বিএনপি নেতারা। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক মন্ত্রী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্কর বিবৃতিতে বলেছেন, ঠান্ডা মাথায় নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে যুবদল নেতাকে গুলি করে হত্যা করেছে আওয়ামী লীগের লোকেরা।

এদিকে, তিন কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে শোভাযাত্রার পেছন থেকে গুলি ছোঁড়ার ঘটনায় রাজনৈতিক বিরোধ দেখছে পুলিশ।

সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মর্জিনা আক্তার বলেন, তিনজন কাউন্সিলর ছিলেন।  র‌্যালি শেষ হয়ে গেছে।  তারপর গুলি করা হল।  হারুন বিএনপিঘেঁষা। রাজনৈতিক বিরোধ ‍থাকতে পারে।  আবার রাজনৈতিক কর্মসূচিতে জনসমাগমের মধ্যে কেউ সুযোগ নিতে পারে।  ব্যবসায়িক বিরোধও থাকতে পারে।  আমরা এসব বিষয়ই খতিয়ে দেখছি।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক জহিরুল ইসলাম বলেন, ‘হারুনের বুকে তিনটি গুলি লেগেছিল। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে অপারেশন থিয়েটারে নেয়ার পর তিনি মারা যান।’

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ