চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

টি-টেন ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন সাকিবরা

প্রকাশ: ২০১৭-১২-১৮ ১১:৩৭:৪৪ || আপডেট: ২০১৭-১২-১৮ ১১:৩৭:৪৪

টি-টেন ক্রিকেটের ফাইনালের লড়াইটা সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালের দলের মধ্যেও হতে পারতো। কিন্তু প্রথম সেমিফাইনাল জিতে সাকিবদের কেরালা কিংস শিরোপার মঞ্চে জায়গা করে নিলেও পারেনি তামিম ইকবালদের দল পাখতুনস। বরং তাদেরকে হারিয়ে কেরালার প্রতিপক্ষ হয়ে আসে পাঞ্জাবি লিজেন্ডস। ফাইনালে কেরাল অবশ্য পাত্তা দেয়নি তাদের। ৮ উইকেটের জয় তুলে নিয়ে শিরোপা জিতে সাকিবদের দল।

রোববার রাতেই টুর্নামেন্টের দুটি সেমিফাইনাল ও ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়। শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শিরোপা নির্ধারনি ম্যাচে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ১০ ওভারে ৩ উইকেটে ১২০ রান করে পাঞ্জাবি লিজেন্ডস। অধিনায়ক ইয়ান মরগান ও পল স্টার্লিং এর ঝড়ে কেরালা তা পেরিয়ে যায় ২ ওভার হাতে রেখেই। তাতে আরব আমিরাতে বসা চারদিনের টুর্নামেন্টের প্রথম আসরটির শিরোপা জিতে দারুণ এক কীর্তিই গড়ে কেরালা।

সেমিফাইনালে মারাঠা অ্যারাবিয়ান্সকে ৫ উইকেটে হারায় কেরালা। সে ম্যাচে বোলিংয়ের সুযোগ পাননি সাকিব। ব্যাট হাতে নেমে কোন বল মুখোমুখি হওয়ার আগেই ফিরেন রান আউট হয়ে। ফাইনালে তো তাকে ব্যাট হাতে নামতেই হয়নি। তার আগেই জয় পায় দল। তবে বল হাতে বড্ড বেশি রান খরচ করেছেন সাকিব। ২ ওভার বল করে দিয়েছেন ৩১ রান।

অবশ্য পাঞ্জাবি ব্যাটসম্যানরা বেধড়ক পিটিয়েছে কেরালা বোলারদের। নির্দিষ্ট করে বললে লুক রনকি ছিলেন মারমুখি। ৩৪ বলে ৭০ রান করেন তিনি ৫ চার ও ৫ ছক্কায়। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৬ রান আসে শোয়েব মালিকের ব্যাট থেকে। কেরালার পক্ষে লিয়াম প্ল্যানকেট ও রায়াত এমরিত ১টি করে উইকেট নেন।

কেরালার ব্যাটসম্যানরা ছিল আরো আগ্রাসী। তাই ১২০ রানের লক্ষ্যও ২ ওভার হাতে রেখে পেরিয়ে যায় তারা। মরগান ২১ বলে করেন ৬৩ রান। ৬টি ছক্কা ও ৫টি চার হাঁকিয়েছেন তিনি। অপরাজিত ৫২ রান করেন স্টার্লিং। ২৩ বলের ইনিংসে ৫টি ছক্কা ও ৩টি চার তার। পাঞ্জাবির বোলারদের মধ্যে ফাহিম আশরাফ ও হাসান আলি ১টি করে উইকেটন নিয়েছেন।

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ