চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

২০১৭ সালে পুরো বছরজুড়ে যা ঘটলো ফটিকছড়িতে

প্রকাশ: ২০১৭-১২-৩১ ২৩:৩৭:৪৩ || আপডেট: ২০১৭-১২-৩১ ২৩:৩৭:৪৩

মীর মাহফুজ আনাম
সিটিজি টাইমস প্রতিবেদক

ইংরেজী সনের আরো একটি বছরকে বিদায় দিতে হচ্ছে আজ। নতুন সন ২০১৮ কে বরণ করে নিচ্ছে বিশ্ববাসী। ঘড়ির কাটা ১২ টা পার হলে অতীত হয়ে যাবে ২০১৭ সাল। কিন্তু এ বছরজুড়ে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনা, দুর্ঘটনা কারো কারো সারা জীবন দাগ কাটবে। ২০১৭ সালে পুরো বছরজুড়ে ফটিকছড়ি উপজেলায় ঘটে যাওয়া নানা ঘটনা, দুর্ঘটনা, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের চীরতরে চলে যাওয়াসহ নানা আলোচিত বিষয়গুলো তুলে ধরার চেষ্টা এ প্রতিবেদনে।

২০১৭ সালের শুরুটা হয়েছিল উৎসবের মধ্য দিয়ে। ৮ জানুয়ারি মাইজভান্ডার আহমদিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও ১২ জানুয়ারি রোসাংগিরী উচ্চ বিদ্যালয়ের জমকালো শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্টান আয়োজনের মধ্য দিয়ে মাসটি ছিল যেন উৎসবমুখর ফটিকছড়ি।

একদিকে উৎসব হলেও মন্দাকিনী খালে সেতু ভেঙ্গে পড়ায় দুর্ভোগে পড়েন সুয়াবিল হয়ে নাজিরহাট -কাজিরহাট সড়ক যাথায়াতকারীরা। একই মাসে নতুন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক কুমার রায় যোগদান করেন। ওই মাসের ২০ তারিখ ডাকাতের প্রস্তুতিকালে বিবিরহাট আলী আকবর রোড থেকে অস্ত্রসহ দুই ডাকতকে গ্রেফতার করেছিল র্যাব। মাসটিতে চীরতরে বিদায় নিলেন সমিতিরহাট ইউপির মুক্তিযোদ্ধা ছালেহ জহুর চৌধুরী।

মাসের শেষ তারিখে ধুরুং জব্বারিয়া ও পাইন্দং এর আলমগীর ও রহিম উদ্দিন নামক দুই আমিরাত প্রবাসী দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান। ফেব্রুয়ারির শুরু হয় দুর্ঘটনা দিয়ে। ৫ তারিখ ট্রাক চাপায় মারা যান মোটরসাইকেল আরোহী পাইন্দং এর জুনায়েদ(২১)। একই মাসের ৮ তারিখ দৌলতপুর ইমামনগর গ্রামের মীরবাড়ির নুরুল ইসলাম(২৩) নামক এক যুবক বিদ্যুতায়িত হয়ে চিকিৎসাধীন মারা যান। ওই মাসের ১১ তারিখ নাজিরহাট পৌর ছাত্রলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে গ্রুপিং এর জের ধরে হুমকি ধমকির কারণে সম্মেলন শুরু হওয়ার আগ মুহুর্তে স্থগিত ঘোষণা দিয়ে বড় ধরণের সংঘাত থেকে রক্ষা পায় সেদিন।

১৫ ফেব্রুয়ারি ফটিকছড়ি কলেজের শিক্ষাসফরের গাড়িতে চন্দনাইশে হামলার শিকার হয়। ২৮ তারিখ ভূজপুরের সাধন বাবুর বাড়িতে ১১ পরিবারে ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। মাসের শেষের দিকে চীর বিদায় নেন ধর্মপুরের তুখোড় রাজনীতিবিদ আবদুল হামিদ।

মার্চের শরুতে ক্যান্সারে মারা যান ফটিকছড়ি কলেজের শিক্ষক মুছা আলম। ওই মাসের ৫ তারিখ না ফেরার দেশে চলে যান প্রবাসী সাংবাদিক মুসা আহমেদ বখতপুরী। একই দিনে দাঁতমারায় নিখোঁজ হওয়ার দুই দিন পর মনোয়ারা (৫২) নামক এক মহিলার মাটিচাপা লাশ পাওয়া যায়। নাজিরহাট ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষ, পরে গণধোলাই আলোচিত ঘটনা এই মাসেই ঘটেছিল। ১৯ মার্চ বিদেশি অস্ত্রসহ ফটিকছড়ি পৌরসদরে হান্নান নামক এক ক্ষমতাসীন দলের নেতাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মার্চের আরেক আলোচিত ঘটনা ছিল পাইন্দং আশরাফাবাদ দরবার শরীফের পরীকে নামাজরত অবস্থায় চুরিকাঘাত। এপ্রিলটা শুরু হয় বড় বেদনার। ১ তারিখ হঠাৎ চীরবিদায় নেন নন্দিত রাজনীতিবিদ,দানবীর জেলা পরিষদের সদস্য ড.মাহমুদ হাসান। যার বিয়োগে শোকে স্তব্ধ হয়ে যায় পুরো ফটিকছড়ি।

এই মাসে এনজিওর টাকা দিতে না ফেরে উত্তর রাঙ্গামাটিয়ার এক যুবক ফেইসবুকে মৃত্যু কামনা করে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। বাবার বিদেশ চলে যাওয়ার দিন কাঞ্চন নগরের ইয়াছিন (২২) নামক এক যুবক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান এ মাসে । ভূজপুরে পানিতে পড়ে একই পরিবারের দুই শিশু মারা যান ৭ মার্চে। এই মাসে চীরবিদায় নেন দৌলতপুরের মুক্তিযোদ্ধা এস.এম.তৌহিদ। আব্দুল্লাপুর ও ভূজপুরের নির্বাচন ছিল ১৬ এপ্রিল। একইদিনে নাজিরহাট-মাইজভান্ডার সড়কে স্বামীর মোটরসাইকেল থেকে পড়ে স্ত্রী ট্রাক চায় নিহতের ঘটনা ঘটে। ২০ এপ্রিল নাজিরহাট ঝংকারে আ.লীগের দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি নিয়ে চরম উত্তেজনা। মাসটির শেষের দিকে চা বাগানের ১৯ পরিবার পাহড়ী সন্ত্রাসীদের নিকট জিম্মি করে রাখে । মে মাসের শুরুতে হেয়াকো করের হাটে মাইক্রোবাস-ও মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই সহোদর নিহত হয়। ৫ মে ভূজপুরে ১২ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ৯ মে আব্দুল্লাহপুরে অপহরণ হওয়া যুবলীগের সভাপতি এনামের হাত পা বাঁধা লাশ পাওয়া যায়।

১৩ মে প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমির মহা পরিচালক ফটিকছড়িতে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান। ২২ মে এনাম হত্যার প্রতিবাদ ও জঙ্গি মিছিলের ব্যানারে নানুপুরে আওয়ামী পরিবারের শোডাউন। ওই মাসের শেষের দিকে ধুরুং খুলশিতে সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র নিহত হয়। মে মাসের শুরুতে মায়ের বকুনিতে কাজিরহাটে সেলুন দোকানি যুবক আত্মহত্যা করে। ১৪ মে পুরো ফটিকছড়িতে বন্যায় চারজনের প্রাণহানি ঘটে। ১৭ মে খিরামে অস্ত্রসহ ছয় সন্ত্রাসীকে আটক করে এলাকাবাসী। ১৮ মে সুয়াবিলে বন্যার পানিতে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ। ১ জুলাই নানুপুর লায়লা কবিরে রাজনীতি নিষিদ্ধ। ২ জুলাই ফায়ার সার্ভিস সংলগ্ন বাস চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। ১৩ জুৃলাই নাজিরহাট বাজারে চিরকুট লিখে আত্মহত্যা করে এক যুবক। ২৬ জুলাই দুর্ঘটনায় আহত হওয়া পাইন্দং এর আব্বাস চিকিৎসধীন অবস্থায় মারা যান। ৪ আগষ্ট সকালে রক্ত দিয়ে রাতে শহর থেকে বাড়ি ফেরার সময় দৌলতপুর পানারখীলের ইমরান নামক এক যুবক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান। ১৩ আগষ্ট ফকিরাচাঁনের প্রবাসী যুবক অপর এক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান। ১৬ আগষ্ট বিবিরহাট আন্ডা মার্কেট সংলগ্ন চলন্ত বাস থেকে পড়ে এক ব্যক্তি নিহত হন।

২৬ আগষ্ট ভূজপুর ন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের এক প্রভাষককে বরখাস্তকে কেন্দ্র করে কলেজে তালাসহ বিক্ষোভ করেছিল শিক্ষার্থীরা। ১ সেপ্টেম্বর নগরীতে গোলাম রসুল নামক ফটিকছড়ির এক যুবক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান। ২০ অক্টোবর লেলাং এ ফাঁসিতে ঝুলে নববধুর আত্মহত্যা। ২৮ অক্টোবর লেলাং এ ভাই এর হাতে ভাই খুন। ৩০ অক্টোবর ফটিকছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে পূনরায় মেয়র নির্বাচিত ইসমাইল হোসেন। ১১ নভেম্বর যবলীগ নেতা জেমকে ষড়যন্ত্র মূলক আটকের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়ক চারঘন্টা অবরোধ। ২০ নভেম্বর ভূজপুরে মুসলিম পরিচয় দিয়ে প্রেমের ফাঁদ ফেলে মুসলিম মেয়েকে ধর্ষণ করেছে হিন্দু যুবক। শ্বাশুড়ির নির্যাতনে সুয়াবিলে গৃহবধুর আত্মহত্যার অভিযোগ এ মাসে। ৩০ নভেম্বর বারৈয়ারহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত প্রবাসী এরশাদের চিকিৎসাধীন মত্যু। ৯ ডিসেম্বর আওয়ামী পরিবারের স্মরণকালের বৃহৎ র্যালী। ১৩ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধা এস.এম মরতুজার মৃত্যু। ১৮ ডিসেম্বর কাঞ্চনগরে পানিতে ডুবে দুই সহোদরের মৃত্যু।

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ