চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

বান্দরবান জেলা প্রশাসকসহ ৫ জনকে আসামি করে মামলা

প্রকাশ: ২০১৮-০২-০৮ ০০:৪৩:২৫ || আপডেট: ২০১৮-০২-০৮ ০০:৪৩:২৫

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ পাঁচজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা। শহরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ডনবস্কো উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কারা করবে- তা নিয়ে প্রশাসনের সাথে দ্বন্দ্বের জের ধরে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বুধবার যুগ্ম জেলা জজের আদালতে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলাটিতে বান্দরবানের জেলা প্রশাসক, মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান, শিক্ষা বোর্ডের পরিদর্শক, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব ও ডনবস্কো উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে আসামি করা হয়েছে।

এদিকে, আদালত আগামী ১০ কার্য দিবসের মধ্যে মামলার আসামি পক্ষকে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার বাদি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট বাচিং থোয়াই মারমা জানান, ১৯৫৮ সালে ক্যাথলিক মিশনারিদের সহায়তায় বান্দরবানে ডনবস্কো উচ্চ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা হয়। পরে ১৯৭৭ সালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা ও সার্বিক ব্যবস্থাপনা প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এর পর থেকে প্রতিষ্ঠানটি ম্যানেজিং কমিটির বিধিমালা মোতাবেক পরিচালিত হয়ে আসছে।

২০১০ সালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা জেলা পরিষদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ২০১৪ সালে পার্বত্য শান্তিচুক্তির আলোকে পার্বত্য জেলার মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগ জেলা পরিষদের কাছে ন্যস্ত করা হয়। সে সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও তিন পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক একটি চুক্তিও সম্পাদন হয়। কিন্তু গত নভেম্বরে চুক্তির বিষয়টি বিবেচনায় না নিয়ে ডনবস্কো উচ্চ বিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে পরিচালনা করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে চিঠি দেয়া হয়। সম্প্রতি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির সমস্ত আর্থিক লেনদেন স্থগিত রাখাসহ অ্যাডহক কমিটি গঠনের জন্য চিঠি দেয়া হয়। যা বেআইনি। এ কারণে সংক্ষুব্ধ হয়ে বাদি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জেলা প্রশাসকসহ ৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক সাংবাদিকদের জানান, মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশে ডনবস্কো উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা ও আর্থিক লেনদেন বন্ধের বিষয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। তবে মন্ত্রণালয় ও জেলা পরিষদের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তির বিষয়টি তিনি জানেন না বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ