চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২৬ মে ২০১৮

আহা, আজি এ বসন্তে এত ফুল ফুটে, এত বাঁশি বাজে, এত পাখি গায়…

প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৩ ০৯:২৭:২৫ || আপডেট: ২০১৮-০২-১৩ ১৬:১৩:৪৭

আখতার হোসাইন

ফুল ফুটুক আর না ফুটুক আজ বসন্ত। পাতা ঝরার মর্মর শব্দ আর রুক্ষ শীতের অবসান ঘটিয়ে আনন্দ বার্তা নিয়ে উপস্থিত হয়েছেন ঋতুরাজ বসন্ত। নব পল্লবে সাজতে শুরু করেছে প্রকৃতি। ঝরা পাতার বির্বণতা থেকে আবার নতুন নতুন পাতায় ফুরফুরে হয়ে উঠে গাছ পালা। সবুজ রঙের আবীরে চেয়ে যায় চারপাশ। চারিদিকে লাল আর হলুদ ফুলের সমারোহ। রক্ত পলাশ, শিমুল, কাঞ্চন, মাধবী, গামারী পারিজাত প্রবৃতি ফুলের সৌন্দর্য্য প্রকৃতিকে যেমন ঐশ্বর্যমন্ডিত করে তোলে তেমনি মানুষের চিত্তে দেয় উষ্ম দোলা। গোপাল, ডালিয়া ফুল আর ভ্রমরের গুঞ্জনে যৌবন ফিরে পায় পুস্পকানন।

ফুলের সৌরভ আর অপরূপ রূপ প্রেমিক মনকে করে তোলে উদাসী। এই আদাসী মনকে প্রশান্তি দিতে মধুর কণ্ঠে অবিরাম গান শোনায় কোকিল।


ফাগুণ ও চৈত্র এই মাস বসন্তকাল। বসন্ত শুধু উৎসব আমেজে ভরিয়ে দিতে আসেনা, আসে নানান উৎসবে মেতে রাখতে। এ সময় আবহাওয়া থাকে নাতিশীতোষ্ণ। যে কোন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বা বনভোজনের জন্য বসন্ত উপভোগ্য। বিভিন্ন ফুলের দোকান ঘুরে দেখা গেছে নানান সাজে সজ্জিত করে সাজানো হয়েছে বিভিন্ন বর্ণিল ফুলের তোড়া। দোকান গুলোকে যুবক যুবতীদের ভীড় লক্ষনীয়।

বসন্তকে বরণ করার জন্য নগরীর ডিসি হিলকে সাজানো হচ্ছে অপরূপ সাজে। ডিসি হিলের গাছ গাছালীতেও শোভা পাচ্ছে বসন্তের নানা রকমের ফুল। এ ফুলের গন্ধে ডিসি হিলে আগত দর্শনার্থীরা আনন্দ উপভোগ করে। সিআরবি পাহাড়েও বসন্ত বরণের নানা আয়োজন চলছে, সাজানো হচ্ছে নানা রঙে। এ ছাড়াও পতেঙ্গা, নেভাল সড়ক, ফয়েজ লেক, স্বাধীনতা পার্ক, শিশুপার্ক গুলোকে দর্শনার্থীর আকর্ষণ করার জন্য সাজানো হয়েছে।

আপনার মতামত দিন...

Open

Close