চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

সীতাকুণ্ডে ঐতিহ্যবাহী শিবচতুদর্শী মেলা শুরু

প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৩ ১০:০২:২৩ || আপডেট: ২০১৮-০২-১৩ ১৬:১৫:২৭

সীতাকুণ্ড চন্দ্রনাথ ধামে আজ মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শিব চতুর্দশী মেলা। আগামী ১৩-১৫ ফেব্রুয়ারী তিনদিনব্যাপী এ মেলা অনুষ্ঠিত হবে। ফাল্গুনী চতুর্দশী তিথিকে ঘিরে আয়োজিত তিনশত বছরের পুরনো ধর্মীয় এ মেলায় প্রতিবছর দেশ-বিদেশের ১৫-২০লাখ পর্যন্ত তীর্থ যাত্রীর আগমন ঘটবে বলে আয়োজকদের ধারণা। ফলে বৃহৎ এ মেলা সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করা প্রশাসন ও মেলা কমিটির জন্য একটি চ্যালেঞ্জে পরিণত হয়।

অবশ্য সনাতন ধর্মপ্রান মানুষের সহযোগিতা, মেলা কমিটি, তীর্থ কমিটি ও প্রশাসনের সমন্বিত প্রচেষ্টায় দীর্ঘকাল ধরে এ মেলাটি অত্যন্ত সুষ্ঠ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এবারো সেই ধারাবাহিকতা অব্যহত রাখতে একযোগে কাজ করে চলেছেন সংশ্লিষ্টরা। আগামী বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে মেলা সমাপ্ত হলেও দোলপূর্ণিমা পর্যন্ত (আরো ১৫দিন) এ মেলার রেশ থাকবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

আয়োজকরা জানিয়েছেন মঠ-মন্দিরে পূজার্চনা ছাড়াও তীর্থভুমির মোহন্ত আস্থানায় প্রতিদিন সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হবে ধর্মীয় আলোচনা সভা। এতে দেশ-বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় অতিথি, মন্ত্রী, এমপি থেকে শুরু করে ধর্মীয় ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত থাকবেন। পুরো তীর্থভুমিতে সাধু-সন্নাসীদের জপ-তপ, পূজা, শঙ্খধ্বনি, মহাপ্রসাদ বিতরণসহ নানান আয়োজনে তীর্থভুমি থাকে সরগরম।

প্রতি বছর এ মেলা চলাকালে সময় সীতাকুণ্ডের চন্দ্রনাথ দর্শনের জন্য ভারত, নেপাল, শ্রীলংকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পুণ্যার্থীরা ছুটে আসেন। মেলায় প্রতিবারের ন্যায় এবারও লক্ষ লক্ষ লোকের সমাগম ঘটবে বলে জানা মেলা কমিটি। শিবচতুদর্শী মেলা সুন্দর,সুশুঙ্খল, সমন্বয় ও সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ১৯৭ সদস্য বিশিষ্ট সীতাকুণ্ড মেলা কেন্দ্রিয় কমিটি গঠন করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক পদাধিকার বলে এ কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করে থাকেন। এছাড়াও উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুল ইসলাম ভূইয়াকে সভাপতি করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট মেলা কার্যনিবার্হী কমিটি গঠন করা হয়েছে। মেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা রক্ষার জন্যে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইফতেখার হাসানের নেতৃত্বে ৩০০ জন পুলিশ সদস্য এবং ৩০ জন মহিলা আনসার-ভিডিপি সদস্য মেলা চলাকালীন সার্বক্ষণিকভাবে নিয়োজিত রয়েছেন।

এছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রায় পাঁচ শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক তীর্থ যাত্রীদের সহায়তাদানে সার্বক্ষণিক নিয়োজিত থাকবে।

মেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক পলাশ চৌধুরী জানান, মেলায় তীর্থ যাত্রীদের আগমনের সুবিধার্থে তুর্ণা নিশিতা, সুর্বণ এক্সপ্রেস, মহানগর প্রভাতীসহ অন্যান্য ট্রেন সমূহের যাত্রার ক্ষেত্রে সীতাকুণ্ডে ৩ মিনিট যাত্রা বিরতি করবে।

প্রতিবছরের ন্যায় এবারও কোনরকম অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই মেলা সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে শেষ করার ব্যাপারে আশাবাদী থানা প্রশাসন।

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ