চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৮

দু’বার সেলাইয়ের পরেও জোড়া লাগেনি প্রসূতির পেট কাটা!

প্রকাশ: ২০১৮-০২-২৮ ১৭:৫৭:৩৩ || আপডেট: ২০১৮-০৩-০১ ১০:৩৪:৪৯

সিটিজি টাইমস প্রতিবেদক 

চট্টগ্রামের কুতুবদিয়ার বাসিন্দা প্রসূতি নাছিমা আকতার (৩২)। মাসখানেক আগে ভর্তি হন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনী ওয়ার্ডে। এরপর সিজার অপারেশনের মাধ্যমে সন্তান জন্ম দেন তিনি। পরে কর্তৃপক্ষ ছাড়পত্র দিলে চলে যান বাড়িতে। কিন্তু বাড়িতে গেলে ইনফেকশন দেখা দেয় তাঁর সেলাইয়ে। এরপর তিনি চলে আসেন হাসপাতালে। পরবর্তীতে ডাক্তাররা তাকে আবারো সেলাই করেন। কিন্তু দুবার সেলাইয়ের পরেও এখনো ঠিকমতো জোড়া লাগেনি তার পেটের অপারেশনের ক্ষত।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) চমেক হাসপাতালে আয়োজিত গণশুনানিতে স্ত্রীর এমন দুরাবস্থার কথা তুলে ধরেন তাঁর স্বামী মো. ইদ্রিছ। রোগী ও সেবাগ্রহিতার সমস্যা জানতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ শুনানির আয়োজন করে।

এসময় হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. জালাল উদ্দিন বলেন, আমরা চেষ্টা করছি রোগীদের সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করতে। এজন্য সকল ডাক্তাররা ও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ রয়েছে। এরপরও বিভিন্ন কারণে আমরা কিছু অভিযোগ পায়।

‘রোগীদের স্বার্থের পরিপন্থী কোনো কর্মকান্ড ঘটলে তাহলে আমরা জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’ বলেন পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. জালাল উদ্দিন।

আয়োজিত গণশুনানিতে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করে। এসময় ১৫টি অভিযোগ পাওয়া যায়। হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগের দায়িত্বশীলরা অভিযোগগুলো সম্পর্কে প্রাথমিক নির্দেশনা দেন।

এছাড়াও কারো বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে সরাসরি ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন পরিচালক। আগামী ২৭ মার্চ পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য্য করা হয়েছেও বলে জানান পরিচালক জালাল উদ্দিন।

আপনার মতামত দিন...

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ

Open

Close