চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ২০ এপ্রিল ২০১৮

বর্ষায় রোহিঙ্গাদের নিরাপদ স্থানে নেয়ার আহ্বান জাতিসংঘের

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-৩০ ২১:১৫:৪৩ || আপডেট: ২০১৮-০৩-৩১ ০৯:৫৬:৩৬

মিয়ানমার থেকে নির্যাতিত হয়ে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শিবিরগুলোতে বর্ষা মৌসুমে মানবিক বিপর্যয় ঘটতে পারে, তাই তাদেরকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেজ। তিনি জানান, রোহিঙ্গারা পাহাড়ের ওপর যেখানে আশ্রয় নিয়েছেন সে এলাকা সাইক্লোন ও ভূমিধস প্রবন এলাকা। ফলে বর্ষা এলেই পাহাড়ের মাটি ধসে পড়ার ঝুঁকি রয়েছে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২৯ মার্চ) নিউইয়র্কে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে জাতিসংঘ মহাসচিব এই আহ্বান জানান।

গুতেরেজ বলেন, ‘আসন্ন বর্ষা মৌসুমে রোহিঙ্গাশিবিরগুলোতে অন্তত দেড় লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী বন্যার ঝুঁকিতে রয়েছে। এছাড়া বর্ষা মৌসুমের অন্য নেতিবাচক প্রভাবগুলোও তাদের ওপর পড়তে পারে। তাই বন্যা ও ভূমিধসের মতো ঝুঁকি এড়াতে শরণার্থী শিবিরগুলোতে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া প্রয়োজন।’

তিনি বলেন, ‘বৃষ্টির সময় কলেরাসহ অন্যান্য রোগের ঝুঁকিতেও রয়েছে শরণার্থীরা। তাই তাদের পুনর্বাসনে একটু উঁচু জমি প্রয়োজন।’

গত বছরের ২৫ আগস্ট রাখাইন রাজ্যে সীমান্তরক্ষী পুলিশের (বিজিপি) সঙ্গে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের সংঘাত শুরু হয়। এতে নিরাপত্তা বাহিনীর ১২ সদস্যসহ শতাধিক রোহিঙ্গা নিহত হন। সহিংসতার হাত থেকে বাঁচতে প্রায় লাখ লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয়। এখন পর্যন্ত প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে বলে জাতিসংঘের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। এর আগে থেকে প্রায় তিন লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অবস্থান করছিল।

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ

Open

Close