চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ২০ এপ্রিল ২০১৮

লোহাগাড়ায় অর্ধগলিত মহিলার লাশ উদ্ধার

প্রকাশ: ২০১৮-০৪-১৬ ১৯:০১:১৮ || আপডেট: ২০১৮-০৪-১৭ ১০:৪৮:১২

রায়হান সিকদার

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের টেন্ডল পাড়াস্থ জামাল কলোনীতে এক অর্ধগলিত মহিলার লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

১৬ এপ্রিল দুপুর আনুমানিক দেড়টায় স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস ছবুর লোহাগাড়া থানা পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে। নিহত মহিলার নাম রেহেনা আক্তার (৩২)। তার বাপের বাড়ী বড়হাতিয়া ইউনিয়নের হাদুর পাড়া এলাকায়। সে পুটিবিলা ইউনিয়নের তাঁতি পাড়া গুরা পুকুর পাড় এলাকার মোহাম্মদ আমিরের স্ত্রী বলে জানা গেছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো: আব্দুস ছবুর ঘটনা সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, উক্ত কলোনির বাসিন্দারা তার বাসাটি কয়েক দিন ধরে তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখতে পান। সকালে উটবট গন্ধ পেলে তাকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ও স্থানীয়রা তালা ভেঙ্গে দেখতে পান মহিলার অধগলিত লাশ।

জামাল কলোনীর মালিক জানান, গত ১১ এপ্রিল তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে বাসা ভাড়া নেন। কাগজপত্রের কথা জিজ্ঞেস করলে বিয়ের কাবিন নামা এবং জাতীয় পরিচয় পত্র কয়েক দিন পরে দিবেন বলে তাকে জানান। এরপর থেকে আর কোন তারা যোগাযোগ করেনি।

নিহত রেহেনা আক্তারের বান্ধবী মোসলেমা বেগম উক্ত প্রতিবেদককে বলেন, রেহেনার পূর্বে চন্দনাইশ এলাকায় বিয়ে হয়েছিল সেখানে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেয়। রেহেনার স্বামী তাকে প্রতিদিন নির্যাতন করত এমনকি বিদ্যুতের শর্ট দিয়ে তাকে অনেক বার নির্যাতন চালিয়েছে। স্বামী নিষ্ঠুর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে তাকে ডিভোর্স দিয়ে চলে আসেন। তিনি আরো বলেন, রেহেনা উক্ত স্বামীকে ডিভোর্স দেওয়ার পরে দুবাই চলে যান। বিগত কয়েক মাস পূর্বে তিনি দুবাই থেকে তার গ্রামের বাড়িতে চলে আসেন। পরবর্তীতে রেহেনা তার বাসায় আশ্রয় নেন। পরে আমিরের সাথে রেহেনার এক গভীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ১১ এপ্রিল তারা দু’জন বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে জামাল কলোনীতে বাসা ভাড়া নেন।

স্থানীয় কলোনীর বাসিন্দারা বলেন, তার বাসা ভাড়া নেওয়ার পর থেকে বাহিরের দরজায় তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখতে পায়। চারদিকে দুর্গদ্ধ ছড়িয়ে পড়লে কলোনীর লোকেরা স্থানীয় মেম্বারকে খবর দেন।

ঘটনার খরব পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন লোহাগাড়া থানার অফিসার মো: সাইফুল ইসলাম ও এসআই আব্দুল আউয়াল।

এব্যাপারে থানার ওসি মো: সাইফুল ইসলাম বলেছেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের পর প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও তিনি জানান। এদিকে এঘটনাটি রহস্যাবৃত বলে স্থানীয় কেউ কেউ মন্তব্য করেছেন। এঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। অন্যদিকে রেহেনার স্বামী আমিরের পদুয়ায় দোকানে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আমির গত বৃহস্পতিবার সৌদি আরবে পালিয়ে চলে গেছেন।

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ

Open

Close