চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮

উন্নয়নে ২০ বছর মেয়াদী পরিকল্পনা শেখ হাসিনার

প্রকাশ: ২০১৮-০৪-২৯ ১২:০২:০৫ || আপডেট: ২০১৮-০৪-২৯ ১৭:১৫:১৬

চলতি বছরের ডিসেম্বরে বর্তমান সরকারের মেয়াদ শেষ হলেও ২০২১ সাল থেকে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত করতে পরিকল্পনা নেয়ার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

অস্ট্রেলিয়া সফরের দ্বিতীয় দিন শনিবার সিডনি শহরে স্থানীয় আওয়ামী লীগের এক আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

‘গ্লোবাল সামিট অব উইমেন’এর পক্ষ থেকে নারীর ক্ষমতায়নে সম্মানজনক ‘গ্লোবাল উইম্যান লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’গ্রহণে শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন। পরদিন তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে এই পদক গ্রহণ করেন। আর দেশে ফেরার আগের দিন তাকে সংবর্ধনা দেয় অস্ট্রেলিয়া আওয়ামী লীগ।

সিডনি শহরের প্রাণকেন্দ্রে একটি পাঁচ তারকা হোটেলে অনুষ্ঠানে যোগ দিলে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। আর এ সময় তিনি প্রায় এক ঘণ্টা বক্তব্য রাখেন।

দীর্ঘ বক্তব্যে শেখ হাসিনা বিএনপির আন্দোলনে নাশকতা, তারা ক্ষমতায় থাকাকালে দুর্নীতি, অত্যাচার নির্াতন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর জিয়াউর রহমানের ক্ষমতা দখল, স্বাধীনতাবিরোধীদেরকে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় নিয়ে আসা, যুদ্ধাপরাধের বিচার বন্ধ, খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে আল বদর নেতাদেরকে মন্ত্রী বানানোর পাশাপাশি দেশ শাসনে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন শেখ হাসিনা।

২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনের আগেই আওয়ামী লীগ ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে কোন অবস্থানে নিয়ে যেতে চায়, তার একটি রূপকল্প দিয়েছিল। আর ২০১৪ সালে বিএনপি-জামায়াত জোটের বর্জনের মুখে ভোটে জিতে টানা দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার আগে থেকেই ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার কথা বলে আসছে আওয়ামী লীগ।

অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হবে। উন্নত সমৃদ্ধ দেশ যাতে হয় তার ব্যবস্থা, তার পরিকল্পনা, তার নীতিনির্ধারণী ইতোমধ্যেই করেছি।’

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে আগামী ডিসেম্বর বা জানুয়ারিতে। বিএনপির দাবি সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তারাই জিতবে আর আওয়ামী লীগ আশা করছে, জনগণ উন্নয়নের জন্য তাদেরকেই ভোট দেবে। সরকারের ধারাবাহিকতা রক্ষার বিষয়টিতে জোর দিয়ে আগামীতেও আবার নৌকা মার্কায় ভোট চাইছেন।

সিডনির সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এখন থেকে শুরু করছি, ২০২১ সাল থেকে ২০৪১ সাল- আমরা বাংলাদেশকে কেমন দেখতে চাই, কী উন্নতি করতে চাই। আমরা সেই পরিকল্পনা প্রণয়নের কাজও শুরু করে দিয়েছি।’

‘২০২১ সালের আগেই বাংলাদেশ মধ্য আয়ের দেশ হবে, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে উন্নত দেশ।’

রাষ্ট্র পরিচালনায় সরকার দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনায় জোর দেয় জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা পরিকল্পনা নেই পাঁচ বছর মেয়াদিI বিএনপি কিন্তু পাঁচ বছর মেয়াদি পরিকল্পনা নিত না, অ্যাডহক বেসিসে তাদের পরিকল্পনা ছিল।’

শেখ হাসিনা তিন বার ক্ষমতায় আসার পর তিনটি পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা করেছে। এর বাইরে আছে ১০ বছর মেয়াদী প্রেক্ষিত পরিকল্পনা। আর এর ফলেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে বলে মনে করেন তিনি।

বিএনপির দিকে ইঙ্গিত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুদ্ধাপরাধী ও জাতির পিতার খুনিদের যারা পুরস্কৃত যারা করেছে তারা চায় না বাংলাদেশ মর্যাদা নিয়ে চলুক, দারিদ্র্যমুক্ত হোক।

উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশের প্রাথমিক স্বীকৃতিপত্র পাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার বিষয়টি ‍উল্লেখ করে আক্ষেপ করেন। বলেন, ‘আজকে যদি আমার বাবা বেঁচে থাকতেন, বাংলাদেশ স্বাধীনতার ১০ বছরের মধ্যেই উন্নয়নশীল দেশ না হতো। তাকে তো বাঁচতে দেওয়া হলো না, তাকে তো কেড়ে নেওয়া হল।’

আপনার মতামত দিন...

ক্যালেন্ডার এবং আর্কাইভ

Open

Close