চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২৬ মে ২০১৮

যানজট: ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার

প্রকাশ: ২০১৮-০৫-১৩ ২১:১৯:১৬ || আপডেট: ২০১৮-০৫-১৪ ১৩:২২:৫৯

প্রশাসনের আশ্বাসে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সোমবার ১২ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা প্রত্যাহার করে নিয়েছে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সংগঠনগুলো।

রবিবার সন্ধ্যায় প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে শ্রমিক নেতারা পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন।

এর আগে ফেনীর ফতেহপুর রেলগেট এলাকা থেকে সৃষ্ট যানজটের কারণে পরিবহনশ্রমিক ও যাত্রীদের দুর্ভোগের প্রতিবাদে এ কর্মসূচির ঘোষণা করা হয়েছে।

পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সংগঠনগুলোর নেতারা বলছিলেন, সোমবার সকাল ছয়টা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত কোনো ধরনের গাড়ি এই মহাসড়কে তারা চালাবেন না। এ ছাড়া যানজট মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত প্রতীকী ধর্মঘট পালন করার ঘোষণা দেন তারা।

আন্তজেলা মালামাল পরিবহন ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতি, আন্তজেলা বাস মালিক সমিতি এবং বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন পূর্বাঞ্চল আগামীকাল যানবাহন বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়। অব্যবস্থাপনার কারণে রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি এবং ভোগান্তি থেকে রেহাই পেতে সংগঠনগুলো এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে সংগঠনের নেতারা জানিয়েছিলেন।

আন্তজেলা মালামাল পরিবহন ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক দ্বীন মোহাম্মদ বলেছিলেন, ফেনী ও কুমিল্লার দাউদকান্দিতে যানজটে আটকে থেকে হাজার হাজার মানুষ ও পরিবহনশ্রমিকেরা চরম ভোগান্তিতে পড়ছেন। এ থেকে রেহাই পেতে আন্তজেলা বাস মালিক সমিতি ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন আগামীকাল সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত গাড়ি না চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন পূর্বাঞ্চলের সভাপতি মৃণাল চৌধুরী বলেছিলেন, দাউদকান্দি টোলপ্লাজায় বাস ও পণ্য পরিবহনের গাড়ি একই লেনে চলাচল করে। একই লেনে চলাচল করলেও এখানে টোল দিতে হয় শুধু পণ্য পরিবহনের ট্রাক-কাভার্ড ভ্যানগুলোকে। ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান থেকে টোল নেওয়ার সময় বাসও আটকে থাকে। এ কারণে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

মৃণাল চৌধুরী আরও বলেছিলেন, এ ছাড়া ফেনীর ফতেহপুর ও সীতাকুণ্ডের দারোগাহাট ওজন স্কেল এলাকায় যানজট সৃষ্টি হয়। এই যানজট অনেক দূর পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে। এতে দুর্ভোগে পড়ছেন পরিবহনশ্রমিক ও যাত্রীরা।

আপনার মতামত দিন...

Open

Close